SSC Physics পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

পদার্থ বিজ্ঞান ২য়

SSC Physics পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

দার্থ বিজ্ঞান ২য়
SSC Physics পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

অধ্যায় পরিচিতি

এসএসসি পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় এর নাম গতি (Motion)। আজকে আমরা এই অধ্যায়ের সাজেশন দেওয়া চেষ্টা করব।

পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায়
SSC Physics পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

আরো পড়ুন>> পদার্থ বিজ্ঞান: ২য় অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

অধ্যায়ের সিলেবাস

স্থিতি এবং গতি, বিভিন্ন প্রকার গতি, স্কেলার ও ভেক্টর রাশি, দূরত্ব ও সরণ, দ্রুতি এবং বেগ, ত্বরণ ও মন্দন, গতির সমীকরণ, পড়ন্ত বস্তুর সূত্র।

আরো পড়ুন>> এসএসসি পদার্থবিজ্ঞান ৩য় অধ্যায়ের (বল) নোট

প্রাথমিক আলোচনা

পদার্থ বিজ্ঞানের একটি প্রধান শাখা হচ্ছে বলবিজ্ঞান- যেখানে বলের ক্রিয়াধীন বস্তুর স্থিতি ও গতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। প্রাচীন বিজ্ঞানীরা সূর্য, চন্দ্র, গ্রহ, নক্ষত্র প্রভৃতির গতির সঠিক কারণগুলো জানতেন না।

সূর্য পৃথিবীর চারদিকে ঘোরে এ জাতীয় ভুল ধারণাও তখন প্রচলিত ছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও তাঁরা দিন-রাত্রি, পূর্ণিমা-অমাবস্যা, সূর্যগ্রহণ, চন্দ্রগ্রহণ, ইত্যাদির সঠিক সময় আগে থেকেই অনুমান করতে পারতেন।

বিজ্ঞানীরা নিউটন তাঁর তিনটি গতিসূত্র এবং মাধ্যকর্ষণ সূত্র প্রকাশ করার পরেই প্রকৃতপক্ষে বস্তুর গতির কারণগুলো জানা যায়। এর ফলেই বলবিজ্ঞান বা বলবিদ্যার তাত্ত্বিক বিকাশ সম্ভব হয়।

উড়োজাহাজের উড়ে যাওয়া, সূর্যের চতুর্দিকে পৃথিবীর ঘূর্ণন রাইফেল থেকে বুলেট বের হওয়া ইত্যাদি ঘটনাগুলো সব গতির অন্তর্ভূক্ত। পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

আরো পড়ুন>> এস.এস.সি পদার্থ বিজ্ঞান অধ্যায় – ২: গতি

কমন উপযোগী জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

>> পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন ১. গতি কাকে বলে?

উত্তর: সময়ের সাথে যখন বস্তুর অবস্থানের পরিবর্তন ঘটে তখন তাকে গতি বলে।

প্রশ্ন ২. স্পন্দন গতি কাকে বলে?

উত্তর: পর্যায়বৃত্ত গতিসম্পন্ন কোনো বস্তু যদি পর্যায়কালের অর্ধেক সময় কোনো নির্দিষ্ট দিকে এবং বাকি অর্ধেক সময় একই পথে তার বিপরীত দিকে চলে তবে ঐ বস্তুর গতিকে স্পন্দন গতি বলে।

প্রশ্ন ৩. সুষম ত্বরণ কাকে বলে?

উত্তর: কোনো বস্তুর বেগ যদি নির্দিষ্ট দিকে সবসময় একই হারে বাড়তে থাকে তাহলে সে ত্বরণকে সুষম ত্বরণ বলে।

প্রশ্ন ৪. সরণ কাকে বলে?

উত্তর: একটি নির্দিষ্ট দিকে গতিশীল বস্তুর আদি এবং শেষ অবস্থানের ন্যূনতম সরলরৈখিক দূরত্বকে সরণ বলে।

প্রশ্ন ৫. মন্দন কী?

উত্তর: সময়ের সাথে বেগ হ্রাসের হারই হলো মন্দন বা ঋণাত্মক ত্বরণ।

আরো পড়ুন>> SSC Biology Suggestions এসএসসি জীব বিজ্ঞান সাজেশান

প্রশ্ন ৬. ভেক্টর রাশি কাকে বলে?

উত্তর: যেসব ভৌতরাশিকে সম্পূর্ণরূপে প্রকাশ করার জন্য মান ও দিক উভয়ের প্রয়োজন হয়, তাদেরকে ভেক্টর রাশি বলে।

প্রশ্ন ৭. পড়ন্ত বস্তুর ৩য় সূত্রটি লিখ। 

উত্তর: পড়ন্ত বস্তুর ৩য় সূত্রটি হলো- স্থির অবস্থান থেকে বিনা বাধায় মুক্তভাবে পড়ন্ত বস্তু নির্দিষ্ট সময়ে যে দূরত্ব অতিক্রম করে তা ঐ সময়ের বর্গের সমানুপাতিক।

প্রশ্ন ৮. ত্বরণ কাকে বলে?

উত্তর: সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে কোনো একটি বস্তুর বেগ বৃদ্ধির হারকে ত্বরণ বলে।

প্রশ্ন ৯. সরণ কী?

উত্তর: একটি নির্দিষ্ট দিকে কোনো একটি গতিশীল বস্তু কর্তৃক অতিক্রান্ত দূরত্ব হলো সরণ।

প্রশ্ন ১০. অভিকর্ষজ ত্বরণ কাকে বলে?

উত্তর: অভিকর্ষ বলের প্রভাবে ভূপৃষ্ঠে মুক্তভাবে পড়ন্ত কোনো বস্তুর বেগ বৃদ্ধির হারকে অভিকর্ষজ ত্বরণ বলে।

আরো পড়ুন>> SSC Physics পদার্থবিজ্ঞান ১ম অধ্যায় নোট

কমন উপযোগী অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

>> পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন ১. সুষম দ্রুতিতে চলমান বস্তুর বেগ সুষম নাও হতে পারে।- ব্যাখ্যা কর। 

উত্তর: বৃত্তাকার পথে সুষম দ্রুতিতে চলমান বস্তুর বেগ সুষম নাও হতে পারে। কোনো গতিশীল বস্তুর বেগের মান ও দিক অপরিবর্তিত থাকলে সেই বস্তুর বেগকে সুষম বেগ বলে। বৃত্তাকার পথে চলামান বস্তুর বেগের মান অপরিবর্তিত থাকলেও বেগের দিক প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হয়। ফলে বেগ সুষম হয় না।

প্রশ্ন ২. সূর্যের চতুর্দিকে পৃথিবীর গতি পর্যায়বৃত্ত গতি হলেও স্পন্দন গতি নয় কেন? ব্যাখ্যা কর। 

উত্তর: যদি কোনো বস্তু তার গতিপথের কোনো নির্দিষ্ট বিন্দুকে নির্দিষ্ট সময় পর পর একই দিক থেকে অতিক্রম করে তবে বস্তুর ঐ গতিকে পর্যাবৃত্ত গতি বলে।

আর যে পর্যাবৃত্ত  গতিসম্পন্ন বস্তু তার পর্যায়কালের অর্ধেক সময় একটি নির্দিষ্ট দিকে এবং বাকি অর্ধেক সময় বিপরীত দিকে গতিশীল থাকে তবে তার গতিকে স্পন্দন গতি বলে। সূর্যের চারদিকে পৃথিবী একটি ধ্রুব বেগে সর্বদা একইদিকে গতিশীল থাকে বিধায় এর গতি পর্যাবৃত্ত গতি হলেও স্পন্দন গতি নয়।

প্রশ্ন ৩. সববেগে চলমান কণার ত্বরণ শূন্য কেন?

উত্তর: যদি কোনো কণার গতিকালে তার বেগের মান ও দিক অপরিবর্তিত থাকে অর্থাৎ কণা যদি নির্দিষ্ট দিকে সমান সময়ে সমান দূরত্ব অতিক্রম করে তাহলে বস্তুর বেগকে সমবেগ বা সুষম বেগ বলে।

অর্থাৎ ত্বরণ হয় অসমবেগের ক্ষেত্রে, কারণ অসমবেগের ক্ষেত্রে বেগের পরিবর্তন ঘটে কিন্তু সমবেগের ক্ষেত্রে বেগের কোনো পরিবর্তন ঘটে না। তাই এক্ষেত্রে কোনো ত্বরণ থাকে না। এ কারণেই সমবেগে চলমান কণার ত্বরণ শূন্য হয়।

প্রশ্ন ৪. সরল  দোলকের গতি স্পন্দন গতি কেন?

উত্তর: পর্যায়বৃত্ত গতিসম্পন্ন কোনো বস্তু যদি পর্যায়কালের অর্ধেক সময় কোনো নির্দিষ্ট দিকে এবং বাকি অর্ধেক সময় একই পথে তার বিপরীত দিকে চলে তবে ঐ বস্তুর গতিকে স্পন্দন গতি বলে। সরল দোলককে একটুখানি টেনে ছেড়ে দিলে একটি সবসময় সাম্যাবস্থার ডান এবং বামদিকে দুলতে থাকে। এজন্য সরল দোলকের গতি স্পন্দন গতি।

প্রশ্ন ৫. পড়ন্ত বস্তুর তৃতীয় সূত্রটি ব্যাখ্যা কর। 

উত্তর: স্থির অবস্থান থেকে বিনা বাধায় পড়ন্ত বস্তু নির্দিষ্ট সময়ে যে দূরত্ব (h) অতিক্রম করে তা ঐ সময়ের (t) বর্গের সমানুপাতিক।অর্থাৎ h α t^2।

অর্থাৎ কোনো বস্তুকে যদি স্থির অবস্থান থেকে বিনা বাধায় পড়তে দেওয়া হয় তবে এক সেকেণ্ডে যদি এটি h দূরত্ব অতিক্রম করে তবে দুসেকেণ্ডে এটি h×2^2 বা 4h দূরত্ব, তিন সেকেণ্ডে এটি h×3^2বা 9h দূরত্ব অতিক্রম করবে।

সুতরাং t1, t2, t3, …… সেকেণ্ডে যদি বস্তুর অতিক্রান্ত দূরত্ব যথাক্রমে h1, h2, h3, …… ইত্যাদি হয় তবে এই সূত্রানুযায়ী, h1/(t1)^2=h2/(t2)^2=h3/(t3)^2=……=ধ্রুবক।

>> পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায়

>> পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

>> পদার্থ বিজ্ঞান ২য় 

>> পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট

One Comment on “SSC Physics পদার্থ বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় নোট”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *